Breaking News

পুরুষের যৌ’বন ক্ষমতা বাড়াবে ১ টুকরো আদা ও রসুন, কিন্তু কখন কিভাবে খাবেন?

আদা ও রসুন ছাড়া বাঙালির রান্না-ঘর ভাবাই যায় না। সু-স্বাদু রান্নার জন্য রান্না ঘরে আদা, রসুন চাই-ই চাই। কিন্তু আদা ও রসুন শুধু খাবারের স্বাদ ও গন্ধ বাড়ায় না, এক টুকরো আদা পু'রুষের যৌ’বন ক্ষমতা বাড়িয়ে জীবনও বদলে দিতে পারে। কি বিশ্বাস হচ্ছে না তো! জেনে নিন!

নিয়মিত আদা খেলে পু'রুষের প্রজনন ক্ষমতা বাড়ে। সহজেই স্পার্ম কাউন্ট বৃদ্ধি করে আদা। প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক উপাদানে ভরপুর আদা। তাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। নিয়মিত আদা খাওয়ার অভ্যাস করলে ছোট-খাটো অনেক রোগের হাত থেকেই মুক্তি মেলে।

দু'র্বল লাগছে? কারণ, যাই হোক এক টুকরো আদা খেয়ে নিন। অনেকটা শক্তি পাবেন। পরে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন, জানুন দু'র্বলতার কারণ। নিয়মিত আদা খেলে পু'রুষের প্রজনন ক্ষমতা বাড়ে। সহজেই স্পার্ম কাউন্ট বৃদ্ধি করে আদা। এছাড়াও আদার মধ্যে থাকা ভোলাটাইল অয়েল স্নায়ুর উ'ত্তেজনা বাড়ায় ও র'ক্ত সঞ্চালনের মাত্রা ঠিক রাখে। প্রতিদিন একটি সিদ্ধ ডিমের সঙ্গে আদার রস ও মধু খেতে পারেন।

রসুন: র'ক্তে শর্করা ও কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে রসুন। ফলে প্রতিদিনের ডায়েটে যদি রসুন থাকে তবে দাম্পত্য জীবনে শারীরিক উ'ত্তেজনা বাড়বে। আফ্রিকান হেলথ সায়েন্সসও এটা প্রামাণ করেছে, আদার মতোই উপকারী রসুন। দাম্পত্য জীবন আনন্দময় করে তুলতে আদা ও রসুনের জুরি নেই।

মি'ল'নের পূর্বে কোন খাবার খেলে বেশি সময় মি'ল'ন করতে পারবেন

মি'ল'ন দীর্ঘস্থায়ী করতে সব পু'রুষই চায়। প্রত্যেকটি পু'রুষ চায় পরিপূর্ণ ভাবে মি'ল'ন করতে। তবে নানান রকম কারণে মানুষের স্বাস্থ্য এবং মি'ল'ন করার ক্ষমতা নষ্ট হয়ে যায়। পৃথিবীতে অধিকাংশ দম্পতিই কোনো না কোনো এক সময় এই অভিযোগটা করেন, যে বিয়ের কিছু বছর পরেই পরস্পরের প্রতি আকর্ষণ হারিয়ে যায়।

সাধারনত অধিক সময় নিয়ে মি'ল'ন করাটা পু'রুষের সক্ষমতার উপরই নির্ভর করে। তথাপি কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করে পু'রুষরা তাদের মি'ল'ন কাল দীর্ঘায়িত করতে পারেন। তবে কে কতটা দীর্ঘ সময় নিয়ে মি'ল'ন করবে এটা অনেকটাই তাদের চর্চার উপর নির্ভর করে থাকে। আসুন জেনে নিই মি'ল'ন দীর্ঘায়িত করার কিছু পদ্ধতি সম্পর্কে।

সবচাইতে বড় যে ভুলটি করেন বেশিরভাগ মানুষ, সেটা হলো বিয়ের পর নিজেকে আর আগের মত যত্ন না করা। নিজেকে সাজানো, নিজের সৌন্দর্য রক্ষা করা, শরীর সুগঠিত রাখা ইত্যাদি কাজগুলো করেন না। সময়ের সাথে সাথে জীবন থেকে হারিয়ে যায় নিজেকে সুন্দর দেখাবার প্রয়াস। স্বভাবতই সঙ্গীর চোখেও আপনি হয়ে পড়তে থাকেন সাদামাটা। অনেক ক্ষেত্রে কুত্‍সিতও! বিয়ে হয়ে গেলো মানেই ফুরিয়ে গেছে সব? বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাই হয়।

কেবল দু’জনে কোথাও বেড়াতে যাওয়া, একটা রোম্যান্টিক ডেট, রোম্যান্টিক মেসেজ চালাচালি এসব যেন কোথায় হারিয়ে যায়। এমনকি দাম্পত্য জীবনটাও হয়ে পড়ে একদম একঘেয়ে। অনেকেই মনে করেন, বিয়ে তো হয়েই গেছে! এখন আর এসব করে কী লাভ? আরে, বিয়ের পরই তো এসবের বেশী প্রয়োজন। রোমান্টিকতার চর্চা করুন মানসিক ও শারীরিক ভাবে। প্রেম ও দাম্পত্য দুনিয়া, দু’টোকেই ভরিয়ে রাখুন নতুনত্বে। এবার এক নজরে দেখে নিন মি'ল'ন দীর্ঘস্থায়ী করার আরো কিছু কার্যকারী উপায় সম্পর্কে।

মাঝে মাঝে একটু দুরত্ব বজায় রাখুন : একটি খাবার যদি আপনি প্রতিদিন খান, কেমন লাগবে আপনার? কিংবা এক সিনেমা যদি রোজ দেখেন? সারাক্ষণ পরস্পরের সঙ্গে থাকলেও তাই হয়। কখনো তাঁকে ছাড়াই বেড়াতে যান। বন্ধুদের সঙ্গে মিশুন, নিজেকেও সময় দিন। একটু দূরত্ব সম্পর্কের জন্য ভালো।

Check Also

দুইভাবে করবে বুঝিনি, ভালো লেগেছে আমার : অপু বিশ্বাস

ঢালিউডের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। চলচ্চিত্রের পাশাপাশি বিভিন্ন পণ্যের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবেও দেখা যায় তাকে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.