Breaking News

অনেক কমে গেল স্বর্ণের দাম, দেখে নিন বাজার দর!

ধনী থেকে গরিবসবাই চায় এটি কাছে রাখতে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি স্বর্ণ বিক্রি হয় সংযুক্ত আরবআমিরাতের দুবাইতে। সাম্প্রতিক করোনা ভাইরাসের ভয়ে পৃথিবীর প্রায় সব দেশ হতে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে।

এমনকি কোথায় মানুষকে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘর হতে বেরহতে দেওয়া হয়না। এমতাবস্থায় স্বর্ণের দাম অনেক কমে গেছে, কয়েকদিন আগেও ২৪ ক্যারেটের দাম ২০২ দিরহাম উঠেছিল কিন্তু বর্তমানে কমে ২৪ ক্যারেটের দাম, ৭৭.২৫ দিরহাম এ নেমে এসেছে।

ভরি =১১.৬৫৪ গ্রাম বাংলাদেশ: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) = 3945 টাকা । দুবাই: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 77.25 দেরহাম, (22 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 166.50 দেরহাম । সৌদি আরব: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 179.40 সৌদি রিয়্যাল, (22 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 167.26 সৌদি রিয়্যাল।

কাতার: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 172.78 কাতারি রিয়্যাল। সিঙ্গাপুর: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 66.24 ডলার ।মালয়েশিয়া: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 197.44 রিংগিত। ইংল্যান্ড: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 38.35 ব্রিটেন পাউন্ড।

বাহরাইন: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 18.40 দিনার। ওমান: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 17.70 রিয়াল। অস্ট্রেলিয়া: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 58.98 অস্ট্রেলিয়ান ডলার ।কুয়েত: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 15.43 দিনার ।কানাডা : প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 61.88 কানাডিয়ান ডলার।

আ’মেরিকা: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 47.75 আ’মেরিকান ডলার ।যেকোনো সময় স্বর্ণের রেট উঠানামা করতে পারে।

আরো পড়ুন
হঠাৎ সরকারি চাকরিজীবীদের জরুরি ১৩ নির্দেশনা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে কর্মস্থলে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরাসহ ১৩ দফা নির্দেশনা মানতে হবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের। সোমবার এসব নির্দেশনা উল্লেখ করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ চিঠি দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে।

মঙ্গলবার সব মন্ত্রণালয় ও অধীনস্ত দপ্তর, প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি পালন নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

১৩ দফা নির্দেশনা বাংলাদেশ জার্নাল-এর পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

১. প্রয়োজনীয়সংখ্যক জীবাণুমুক্তকরণ ট্যানেল স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা প্রদান করা যেতে পারে।

২. অফিস চালু করার আগে অবশ্যই প্রতিটি অফিস কক্ষ/আঙিনা/ রাস্তাঘাট জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

আরও পড়ুন: আবারো বাড়ছে সাধারণ ছুটি

৩. প্রত্যেক মন্ত্রণালয়/ বিভাগে প্রবেশ পথে থার্মাল স্ক্যানার/ থার্মোমিটার দিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে অফিসে প্রবেশ করাতে হবে।

৪. অফিসের পরিবহনগুলো অবশ্যই শতভাগ জীবাণুনাশক দিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। যানবাহনে বসার সময় পারস্পারিক ন্যূনতম তিন ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে এবং সবাইকে মাস্ক (সার্জিক্যাল মাস্ক অথবা তিন পরত (স্তর) বিশিষ্ট কাপড়ের মাস্ক, যা নাক ও মুখ ভালোভাবে ঢেকে রাখবে) ব্যবহার করতে হবে।

৫. সার্জিক্যাল মাস্ক শুধু একবার হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। কাপড়ের মাস্ক সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে পুনরায় ব্যবহার করা যাবে।
৬. যাত্রার পূর্বে এবং যাত্রাকালীন পথে বার বার হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে।
৭. খাওয়ার সময় শারীরিক দূরত্ব (ন্যূনতম তিন ফুট) বজায় রাখতে হবে।

৮. প্রতিবার টয়লেট ব্যবহারের পরে সাবান দিয়ে জীবাণুমুক্তকরণ নিশ্চিত করতে হবে।
৯. অফিসগুলোতে কাজ করার সময় শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।
১০. কর্মস্থলে সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে এবং ঘন ঘন সাবান পানি বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে।

১১. করোনা প্রতিরোধে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন সাধারণ নির্দেশনাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি নিয়মিত মনে করিয়ে দিতে হবে এবং তারা স্বাস্থ্যবিধিগুলো মেনে চলছে কিনা, তা মনিটর করতে হবে। ভিজিলেন্স টিমের মাধ্যমে মনিটর কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

১২. দৃশ্যমান একাধিক স্থানে ছবিসহ স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশনা ঝুলিয়ে রাখতে হবে।
১৩. কোনো কর্মচারীকে অসুস্থ পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে আইসোলেশন বা কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে।

উল্লেখ্য, দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। করোনার বিস্তার রোধে ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে সাধারণ ছুটি চলছে। এই ছুটি এখন পর্যন্ত কয়েক দফা বাড়িয়ে ১৬ মে পর্যন্ত নির্ধারণ করা আছে। তবে ছুটি আরও বাড়ানোর বিষয় নিয়ে সরকারের মধ্যে আলোচনা চলছে।

যদিও ছুটির মধ্যে প্রয়োজন অনুসারে অফিস খোলা রাখা যাবে। তবে প্রয়োজনীয় অফিস খোলা রাখতে গিয়ে যেন করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য এই ১৩ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Check Also

“বিশ্ববাজারে” স্বর্ণের ধস, ব্যাপক অস্থিরতা

“বিশ্ববাজারে” স্বর্ণের ধস, ব্যাপক অস্থিরতা! গত সপ্তাহজুড়ে বি,শ্ববাজারে স্বর্ণের দামে ব্যাপক অস্থিরতা দেখা গেছে। হঠাৎ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.