Breaking News

নাটোরে বউ বাজি রেখে মোবাইলে লুডুর জুয়া খেলতে গিয়ে ‘লঙ্কাকাণ্ড’

করোনার মধ্যেও বউ বাজি রেখে লুডুর জুয়া খেলতে গিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার বিকেলে নাটোরের হালসা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। এতে ফিরোজা (৪৫) এবং রেখা (৫০) নামে দুইজন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী জানান, গতকাল বিকেলে শাজাহানের ছেলে আশিক (২৭) শুকুরের ছেলে মহসিন (২৫) শফি মন্ডলের ছেলে শহিদ (৩৫) মিলে মোবাইল ফোনে অনলাইন জুয়া খেলছিলেন। এই জুয়ায় তারা নিজেদের স্ত্রীদের বাজি রাখেন।

বিষয়টি তাদের পরিবারের মধ্যে জানাজানি হয়। পরে তাদের স্ত্রীরা এসে সেখানে ঝগড়া ঝাটি শুরু করেন। এসময় সেখানে উপস্থিত লোকজনের হ'স্তক্ষেপে তারা যে যার বাড়ি চলে যান। পরে রেখার ছেলে রাকিব ও রেখার ভাই রঞ্জু আশিকের বাড়িতে গিয়ে তার শাশুড়ি ফিরোজাকে মারপিট করে গুরুতর আহত করেন। এতে মহিউদ্দিনের স্ত্রী রেখা খাতুনও আহত হন। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভিকটিমদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেও তাদের কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। বিষয়টি জানতে ইউপি সদস্যের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানিনি। খোঁজ নিয়ে দেখছি।

সদর থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গেলে তারা পালিয়ে যান। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্যদের মাধ্যমে বিষয়টি মীমাংসা করে দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

অনলাইন জুয়া খেলার ব্যাপারে তিনি জানান, বিষয়টি তিনি জানতেন না। খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন

অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল লিভারের জন্য বিপজ্জনক, হতে পারে ক্যান্সারও!

অনেকেই খাবার মুড়িয়ে রাখতে কিংবা রান্নার প্রক্রিয়ায় অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল ব্যবহার করি। এছাড়াও বেকিং ও রোস্ট করার জন্য সারাবিশ্বেই প্রচুর ব্যবহৃত হচ্ছে ফয়েল পেপার। তবে এ প্রক্রিয়াটি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বলে মনে করছেন গবেষকরা।
সম্প্রতি মিশরের ইউনিভার্সিটি অব কায়রোর এক গবেষণায় দেখা গেছে, অ্যালুমিনিয়ামে মোড়ানো খাবারে উপকারের চেয়ে ক্ষতির পরিমাণ অনেক বেশি। এ বিষয়ে গবেষক অ্যাইন শ্যামস বলেন, খাবার বানানোর প্রক্রিয়ায় অ্যালুমিনিয়ামের ব্যবহার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদিত মাপকাঠির ওপরে।

খাবার মোড়াতে অ্যালুমিনিয়াম ব্যবহার করা হলে তা খাবারেও প্রবেশ করে। খাবার রাখার পাত্র ও আশপাশে ব্যবহৃত নানা উপাদান সর্বদা খাবারে প্রবেশ করে। আর এ কারণে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলও খাবারে মিশে যেতে পারে।

অতীতে অ্যালুমিনিয়ামের প্রসার ছিল না। সে সময় টিনের ফয়েল ব্যবহার করে অনেকেই খাবার মোড়াতেন।
তবে সে সময় টিনের কারণে খাবারের স্বাদ গন্ধ কিছুটা পরিবর্তিত হয়ে যেত। এরপর টিনের পরিবর্তে অ্যালুমিনিয়াম ব্যবহার শুরু হয়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, অ্যালুমিনিয়াম দেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। দীর্ঘদিন এটি ব্যবহারে শারীরিক নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। জেনে নিন সেগুলো সম্পর্কে-

> কিডনি ও লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। গরম খাবার অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে মুড়িয়ে রাখার ফলে খাবারের সঙ্গে পেটে কিছুটা অ্যালুমিনিয়াম চলে যায়। যা আপনার কিডনি এবং লিভার ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে।

> এটি মস্তিষ্কের কোষের বৃদ্ধি কমিয়ে দেয়। মস্তিষ্কের টিস্যুতে অতিরিক্ত অ্যালুমিনিয়াম জমা হলে অ্যালাঝাইমারস-এ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। এটি মস্তিষ্কের স্মৃতিবিধ্বংসী রোগ।

> এছাড়া হাড়ের কিছু রোগের জন্যও দায়ী অ্যালুমিনিয়াম। শরীরে অ্যালুমিনিয়ামের মাত্রা বেড়ে গেলে হাড়ের সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

> ক্যান্সারের সম্ভাবনা বাড়িয়ে তোলে। দীর্ঘদিন ধরে খাবার রান্না বা পরিবেশনে আপনি অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল ব্যবহার করছেন। এর ফলে শরীরে ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

> এটি শ্বাসকষ্টের সমস্যা তৈরি করে। অনেকের শ্বাস- প্রশ্বাসের সমস্যা দেখা দেয় এর ফলে।

খাবার রান্না বা পরিবেশনের জন্য অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল এড়িয়ে চলুন। এর বদলে কাঁচের বা মাটির তৈরি বাসনপত্র ব্যবহার করতে পারেন। যা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।

Check Also

বরগুনায় বাবার অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মা-মেয়েকে মারধর

বরগুনার আমতলীতে সাকিব খান নামে এক মাদকসেবী যুবকের সঙ্গে কথা বলতে রাজি না হওয়ায় মা-মেয়েকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.