ফুটফুটে ৪ মাসের বাচ্চা বাসায় রেখে করোনাযু’দ্ধে ডা. আফরোজা!

ফুটফুটে ৪ মাসের বাচ্চা বাসায় রেখে করোনাযু’দ্ধে ডা. আফরোজা!

ফুটফুটে সন্তান। বয়স মাত্র ৪ মাস ৭ দিন। মায়ের বুকের দুধই যার একমাত্র খাবার। প্রতিটি ক্ষণ-মুহূর্ত যার মায়ের পরশে থাকার কথা। সময়-অসময়ে কান্নায় মায়ের বুকই যার জন্য পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ আশ্রয়। এই মায়ের এখন অন্যতম যুদ্ধ সন্তানকে আদর-আহ্লাদে বড় করা। কিন্তু সেই মা বৈশ্বিক মহামারির এই সময়ে নিজের মমতাময়ী সন্তানকে রেখে যাচ্ছেন আরেক যুদ্ধে।

নবীন চিকিৎসক মাহমুদা সুলতানা আফরোজা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সন্তানকে বাসায় রেখে হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিবেন তিনি।

মাতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকা ডা. মাহমুদা সুলতানা আফরোজা হাসপাতালের পরিচালক বরাবর তার ছুটি বাতিলের আবেদন করেছেন।

ডা. মাহমুদা সুলতানা আফরোজা চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের জেনারেল সার্জারি বিভাগের মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি তাঁর কোল জুড়ে আসে এক পুত্র সন্তান আজমাইন রহমান জেইন। তারপর থেকে ছুটিতে ছিলেন তিনি।

ডা. মাহমুদা সুলতানা আফরোজা তার আবেদনে হাসপাতালে নতুন করে প্রস্তুত করা করোনা ওয়ার্ডের রোগীদের চিকিৎসার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ প্রথমে ইতস্ততবোধ করলেও পরে ওই চিকিৎসকের আগ্রহের কারণে আদেবন গ্রহণ করে বলে জানা যায়।
ডা. মাহমুদা সুলতানা আফরোজা বাংলানিউজকে বলেন, ‘বর্তমানে যে বৈশ্বিক মহামারি চলছে, একজন চিকিৎসক হিসাবে ঘরে বসে থাকাটা সমীচীন মনে করছি না। চিকিৎসা না দিলে নিজের মধ্যে অপরাধবোধ কাজ করছে। বিবেকের তাড়ানায় আমি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি বলেন, এমন কঠিন মুহূর্তে চিকিৎসা না দিয়ে কী করে বসে থাকব। তাছাড়া করোনাকালীন এসময়ে চিকিৎসক সংকটও আছে। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি মাতৃত্বকালীন ছুটি বাতিল করে করোনা ওয়ার্ডের রোগীদের সেবা করার। পারিবারিকভাবেই আমি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

হঠাৎ ঠাণ্ডায় গলা ব্যথা? নিমিষেই মুক্তি দেবে রসুন
এই সময় ঠাণ্ডা লেগে গলা ব্যথা হলেই ভয় পেয়ে যান সবাই। ভাবেন এই বুঝি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে সাধারণ ঠাণ্ডা বা গলা ব্যথাতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই।

ঘরোয়া ভাবেই এর প্রতিকার করা সম্ভব। রান্নাঘরে থাকা কিছু সাধারণ উপাদান সহজেই গলা ব্যথা থেকে মুক্তি দেবে। গলা ব্যথা দূর করতে ওষুধের চেয়েও বেশি উপকারী বাড়িতে থাকা এসব উপাদান। চলুন জেনে নেয়া যাক গলা ব্যথা দূর করার উপায়-

রসুন- রসুন গলা ব্যথা নিরাময়ে সহায়তা করে। রসুনের মধ্যে থাকা অ্যালিসিন গলা ব্যথার কারণ ব্যাকটিরিয়াকে মেরে ফেলতে সহায়তা করে। এটি কাঁচাও খাওয়া যায় এবং রান্না করেও খাওয়া যায়। তাই গলা ব্যথা হলে রসুন খান।

আদা- গলা ব্যথা থেকে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে আদা। এর অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য গলা ব্যথা সারাতে সহায়তা করে। পানি গরম করে তাতে কয়েক টুকরো আদা দিন। এটি প্রায় ৫ থেকে ১০ মিনিটের জন্য ফোটান। দিনে কমপক্ষে দুইবার এই পানি পান করুন। গলা ব্যথা দূর হবে।

দারুচিনি- কয়েক ফোঁটা দারুচিনি তেলের সঙ্গে এক চা চামচ মধু মিশ্রিত করুন। দিনে একবার এটি ব্যবহার করুন, গলার ব্যথা থেকে দ্রুত মুক্তি দিতে সহায়তা করে এটি।

হলুদ- অল্প হলুদ গুঁড়া এক গ্লাস গরম পানির সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এরপর সকালে খালি পেটে পান করুন। দুধের সঙ্গেও হলুদ মিশিয়ে খেতে পারেন।

মধু- এককাপ গরম পানিতে এক থেকে দুই চামচ মধু মেশান এবং দিনে দুই থেকে তিনবার পান করুন। ঘুমাতে যাওয়ার আগে এক চা চামচ মধু খেতে পারেন। গলা ব্যথা দূর হবে।

লেবুর রস- আমাদের শরীর থেকে টক্সিন দূর করতে লেবু বেশ কার্যকরী। গলা ব্যথা হলে একগ্লাস গরম পানিতে লেবুর রস ও এক চা চামচ মধু ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। দিনে অন্তত দুইবার পান করুন। গলা ব্যথা ও টনসিলের সমস্যা দূর হবে দ্রুত।

লবণ-পানির গার্গল- গলা ব্যথার প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে এটি বেশ জনপ্রিয়। একগ্লাস হালকা গরম পানি নিন। এবার তাতে এক চা চামচ লবণ দিয়ে সেটি ভালোভাবে মেশার। এটি গলা ব্যথা থেকে দ্রুত মুক্তি দিতে সহায়তা করে।

Check Also

যারা বাচ্চাকে সাড়ে ৩-৪ বছরে স্কুলে দিবেন ভাবছেন, তাদের জন্য খুবই জরুরী এই পোস্ট

আমাদের দেশের স্কুল মানেই একেবারে সিরিয়াস লেখাপড়া। আর আপনারা এখন খেলার ছলে শিখাচ্ছেন তাই শিখছে।স্কুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *