Breaking News

”আত্মহ’ত্যা নয়, বেড়িয়ে এলো আসল র’হস্য

বলিউডের নতুন প্রজন্মের অন্যতম জনপ্রিয় মুখ সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্যজনক মৃত্যুতে বা’করু’দ্ধ গোটা ভারত। প্রাথমিকভাবে আত্মহ’ত্যা বলে অনুমান করা হলেও, অভিনেতাকে হ’ত্যা করা হয়েছে বলে দাবি সুশান্তের এক আত্মীয়ের। ভারতের বিহারের

পূর্ণিয়ার বাসিন্দা তিনি। সেখানে তার এক আত্মীয় দাবি করেছেন যে সুশান্তকে হ’ত্যা করা হয়েছে। সিবিআই তদ’ন্তের দাবিও জানিয়েছেন তিনি। পুলিশ প্রাথমিক তদ’ন্তে অবশ্য আত্মহ’ত্যা বলেও অনুমান করেছে। তবে তার আত্মীয় আরসি সিং বলেন, সুশান্ত খুবই সা’হসী ছেলে। ও কখনই আত্মহ’ত্যা করতে

পারে না। তাকে হ’ত্যা করা হয়েছে। তিনি আরো উল্লেখ করেন, কয়েকদিন আগেই তার প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সাইলানের মৃ’ত্যু হয়। তাকেও খু’ন করা হয়েছে বলে দাবি করেন সুশান্তের এই আত্মীয়।

ভারতের স্থানীয সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, ঘটনার আগে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিয়েছেন তিনি। অর্থাত্‍ তার বন্ধুরা ফ্ল্যাটেই উপস্থিত ছিলেন। সকালে তার পরিচারিকা দরজা না খুলতে পারায় ভা’ঙার চেষ্টা করেন।

ভা’ঙতে না পারলে একজন মেকানিক ডেকে আনা হয়। এরপরই দরজা খুলে তার ঝু’লন্ত দেহ উ’দ্ধার করা হয়েছে। টেলিভিশন শো দিয়ে অভিনয় শুরু সুশান্তের। তার জনপ্রিয় সিরিয়াল ছিল ‘পবিত্র রিস্তা।’ অঙ্কিতা লোখান্ডের সঙ্গে মুখ্য চরিত্রে

অভিনয় করেছিলেন তিনি। রীতিমত ঘরে ঘরে চলত সেই ধারাবাহিক। একাধিক বলিউডের ছবিতেও মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। তার সবচেয়ে উল্লেখ্য ছবিগুলো হলো এম এস ধোনি, ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী, কেদারনাথ। শেষ তাকে দেখা গিয়েছিল ছিছোরে ছবিতে।

চূড়ান্ত লকডাউন এলাকার তালিকা প্রকাশ!

ঢাকা সিটি করপোরেশনের ৪৫টি এলাকাকে রেড জোনে চিহ্নিত করা হয়েছে। করোনা প্রতিরোধে গঠিত কমিটির সভায় এসব এলাকাকে চিহ্নিত করা হয়। সভার সিদ্ধান্ত হয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির মোট ৪৫টি এলাকাকে ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটির ১৭ এবং

দক্ষিণ সিটির ২৮টি এলাকা আছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ডেপুটি পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) ও করোনা প্রতিরোধে গঠিত কেন্দ্রীয় টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য সচিব ডা. জহিরুল করিম বলেন, গত ১৪ দিনে প্রতি এক লাখ জনসংখ্যার ভেতরে ৬০ জন রোগীর থাকার ভিত্তিতে এই রেড জোন ঘোষণা করা হচ্ছে।

এটা কেবল ঢাকা ও চট্টগ্রামের জন্য প্রযোজ্য। বাকি জেলাগুলোতে ১৪ দিনের ভেতরে ১ লাখ জনসংখ্যার ১০ জন থাকলে সেটাকে রেড জোন ঘোষণা করা হবে। ঢাকা উত্তর সিটির রেড জোন চিহ্নিত এলাকা:

উত্তর সিটি করপোরেশনের যে ১৭ এলাকাকে রেড জোন হিসেবে ধরা হয়েছে সেগুলো হলো- মিরপুর, মোহাম্মদপুর, কল্যাণপুর, গুলশান, বাড্ডা, ক্যান্টনমেন্ট, মহাখালী, তেজগাঁও, রামপুরা, আফতাবনগর,

মগবাজার, এয়ারপোর্ট, বনশ্রী, রাজাবাজার, উত্তরা। ঢাকা দক্ষিণ সিটির রেড জোন চিহ্নিত এলাকা: দক্ষিণ সিটির ২৮টি এলাকার মধ্যে আছে- যাত্রাবাড়ী, ডেমরা, মুগদা, গেন্ডারিয়া, ধানমন্ডি, জিগাতলা, লালবাগ, বাসাবো,

শান্তিনগর, পরীবাগ, পল্টন, আজিমপুর, কলাবাগান, রমনা, সূত্রাপুর, মালিবাগ, কোতোয়ালি, টিকাটুলী, মিটফোর্ড, শাহজাহানপুর, মতিঝিল, ওয়ারী, খিলগাঁও, কদমতলী, সিদ্ধেশ্বরী, লক্ষ্মীবাজার, এলিফ্যান্ট রোড, সেগুনবাগিচা।

Check Also

পুকুর সেঁচে পাওয়া গেলো বড় বড় ইলিশ!

ভোলায় চরফ্যাশন উপজেলার একটি পুকুর সেঁচে মিলেছে বড় সাইজের ৮টি ইলিশ মাছ। প্রতিটি ইলিশের ওজন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.