Breaking News

মাশরাফীর শারী’রিক অবস্থা নিয়ে এইমাত্র যা বললেন প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক

মাশরাফীর শা’রী’রিক অবস্থা উন্নতির পথে। জ্ব’র কমতে শুরু করেছে। শ’রীরে’র ব্য’থাও কম। প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবিএম আব্দুল্লাহর পরামর্শ মেনে ঘরে বসে চিকিৎসা নিচ্ছেন মাশরাফী। চেক আপে খারাপ কিছু আসেনি। মাশরাফী করো’নায়

আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার পর থেকে সরগরম টাইগার ক্রিকেট অঙ্গন। কিংবদন্তি অধিনায়কের অবস্থা জানতে ব্যস্ত সংবাদকর্মী, সমর্থকেরা। শা’রী’রিক অবস্থা খা’রাপ হয়েছে, ভর্তির জন্য হাস’পাতালে খোঁজা হচ্ছে, এমন খবরে বিভ্রা’ন্ত হয়েছেন ম্যাশ নিজে।

ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে সবাইকে আশ্বস্ত করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ড. এবিএম আব্দুল্লাহ-র পরামর্শে ঘরে বসে চিকিৎসা নিচ্ছেন মাশরাফী। মাশরাফীর দেখভাল করছেন স্ত্রী সুমনা হক সুমি। বাবা-মায়ের কাছ থেকে আলাদা রাখা হয়েছে

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে কলেজছাত্রীর আত্মহ’ত্যা

ছেলে ও মেয়েকে। কোনো খবরে বিভ্রা’ন্ত না হতে সমর্থকদের আহ্বান জানিয়েছেন মাশরাফীর ছোট ভাই। গেল শনিবার করো’নায় আ’ক্রা’ন্ত হন মাশরাফী। একই দিনে আরেক টাইগার অপুরও পজে’টিভের খবর আসে। এদিকে, মাশরাফীর পর কভিড নাইন্টিন টেস্টে প’জিটিভ হয়েছেন তার ছোট ভাই মোরসালিন।

চাঁদপুরের মতলবে আফসানা মিমি (১৭) নামে এক কলেজছাত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁ’স দিয়ে আত্মহ’ত্যা করেছে। তবে আত্মহ’ত্যার কিছুক্ষণ আগে সে নিজের ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মতলব দক্ষিণ উপজেলা সদরের মধ্য কলাদী এলাকার একটি বাসায় এ ঘটনা ঘটে। আফসানা মিমি মতলব পৌরসভার দক্ষিণ বাইশপুর গ্রামের মনির হোসেন ফরাজীর ছোট মেয়ে। সে স্থানীয় রয়মনেননেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে পড়তো।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শহরের মধ্য কলাদী এলাকায় আব্দুর রব মিয়ার ভবনের তিনতলায় আফসানার বড় বোন হালিমা ভাড়া থাকে। ওই বাসায় আফসানা তার বোনের সঙ্গে থেকে পড়াশুনা করতো। ঘটনার দিন হালিমা তার চার বছরের শিশু ছেলেকে আফসানার কাছে রেখে দক্ষিণ বাইশপুর গ্রামে বাবার বাড়িতে যায়। কিন্তু সন্ধ্যায় বাসায় ফিরে দেখে ভেতর থেকে দরজা লাগানো। পরে আশপাশের লোকজনের সহায়তায় হালিমা ঘরে ঢুকে বোনের ফাঁ’সিতে ঝুলানো লা’শ দেখতে পায়।

ওই কলেজছাত্রীর আত্মহ’ত্যার বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানা যায়নি। পুলিশ জানায়, আত্মহ’ত্যার কিছুক্ষণ আগে Afsana MiMi তার ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস লিখে যায়। তবে সেখানে তার আত্মহ’ত্যার জন্য কাউকে দায়ী করে কিছুই লিখে যায়নি। পরে ঘটনাস্থল থেকে লা’শ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার আইচ বলেন, কী কারণে ওই কলেজছাত্রী আত্মহ’ত্যা ঘটেছে তা এখনো জানা যায়নি। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃ’ত্যুর মামলা হয়েছে। আজ বুধবার লা’শের ময়নাত’দন্ত হবে।

Check Also

বরগুনায় বাবার অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মা-মেয়েকে মারধর

বরগুনার আমতলীতে সাকিব খান নামে এক মাদকসেবী যুবকের সঙ্গে কথা বলতে রাজি না হওয়ায় মা-মেয়েকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.