ভুলেও শরীরের এই পাঁচটি জায়গায় স্পর্শ করবেন না, সাবধান!

আমাদের শরীরের (body) এমন কিছু অঙ্গ আছে যেখানে নিজেদের হাত দিতে নেই। দিলে হতে পারে মারাত্মক বিপদ। কারন আমাদের শরীরের (body) কিছু কিছু অংশ খুব সেন্সেটিভ। আবার কিছু কিছু স্থানে ময়লা ও ব্যক্টেরিয়ার (bacteria) আঁতুরঘর। তাই সেই জায়গা থেকে যেমন ছড়াতে পারে মারাত্মক রোগ তেমন কোথাও সৃষ্ট হতে পারে মারাত্মক ক্ষত তাহলে আসুন জেনে নেই সেই বিশেষ জায়গাগুলো সম্পর্কে আর তার কারন সম্পর্কে।

১. নখের নীচের ত্বকঃ আমাদের নখের নীচে হল জীবানুদের আতুরঘর, বিশেষ করে পায়ের নখ। তাই কখনো হাত দিয়ে নখ পরিষ্কার মরা উচিত নয়। ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করুন। আর নখ বড় রাখবেন না, তাতেও জীবানুর বাসা বাধে নখের নীচে।

২. খালি হাত মুখে হাতঃ খালি হাত মুখে হাত দেওয়া কখনোই উচিত নয়। কারন আমারা যখন কাজ করি তখন মাঝে মাঝেই হাত মুখে চলে যায়। আর সেই হাতের ময়লা (dirty) মুখের চারপাশ থেকে মুখের ভিতরে চলে যায়।

৩. নাসারন্ধে হাতঃ আমরা যখন নাক খুঁটি তখন নাশারন্ধ্রের ভিতরে উপস্থিত স্টেফাইলোকক্কাস অরিয়াস ব্যাক্টেরিয়ার (bacteria) উপস্থিতির পরিমান শতকরা ৫১ শতাংশ বেড়ে যায়।

৪. চোখে হাত নয়ঃ দিনের মধ্যে যখন চোখ মুখ ধোবেন কিংবা যাদের কন্টাক্ট লেন্স (lens) আছে, সেটি পড়ার সময় ছাড়া চোখে হাত দেবেন না। কারন খালি হাতে জীবানুর বাসা হয়। সেই হাত চোখে দিলে হতে পারে মারাত্মক বিপদ। তাই যখন চোখে হাত দেবেন হাত ধুয়ে দিন।

৬. পশ্চাতদেশঃ পেটের মধ্যে কুচো কৃমির কারনে মাঝে মাঝেই মলদ্বারে চুলকানির সৃষ্টি হয়। তাই নিজের অজান্তেই হাত চলে যায়। আর তাতেই বিপদ। কারন মলদ্বার হল জীবানুর আতুরঘর। তাই যদি মলদ্বারে কোনো কারনে হাত চলে যায় তবে ভালো করে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিন।

৭. কানের মধ্যে হাতঃ আমাদের কানের মধ্যে ময়লা (dirty) হওয়ার কারনে আমরা মাজে মাঝেই কানের মধ্যে হাত দিয়ে থাকি। যারফলে ময়লা (dirty) আমাদের হাতে চলে যায়। আর সেই হাত যদি মুখে যায় তো বিপদ। তাই কান ধোঁচানোর জন্য কাঁঠি ব্যবহার করুন।

Check Also

হটাত করে নাক-কান-গলায় কিছু ঢুকে গেলে কী করবেন? জেনে রাখুন।

অনেকসময় না বুঝেই শিশুরা কিছু জিনিস নাক-কান কিংবা গলায় দিয়ে ফেলে। অনেক সময় তা বিপজ্জনকও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *