Breaking News

সন্তানের মুখ দেখার আগেই চলে গেলেন শান্ত

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান শান্ত। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পরিসংখ্যান বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের ছাত্র ছিলেন। এছাড়া ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের উপ পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদকও ছিলেন তিনি। শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ঢাকার কেরানীগঞ্জে মোটর সাইকেল দু’র্ঘ’ট’না’য় নি”হ”ত হন শান্ত।

জানা গেছে, এক বছর আগে ঢাবির বোটানি বিভাগের শিক্ষার্থী তাসফিজা সিনথীকে বিয়ে করেছিলেন শান্ত। শান্তর স্ত্রী বর্তমানে সন্তান সম্ভবা। ২০১৯ সালের ১২ ডিসেম্বর বিয়ে করেন তিনি। দু’মাস আগেই প্রথম বিবাহবার্ষীকি উদযাপন করেছেন এই দম্পতি।

মেহেদী হাসান শান্তর বন্ধু ও শহীদুল্লাহ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী লায়েল বলেন, বিকেলে স্থানীয় এক বন্ধুর সঙ্গে ঘুরতে বেড়িয়েছিলেন শান্ত। মোটরসাইকেলের পেছনে বসা ছিলেন তিনি। তার মাথায় কোনো হেলমেট ছিল না। সামনের দিক থেকে আসা একটি মাইক্রোবাসের সঙ্গে মুখোমুখি সং’ঘ’র্ষ হলে ঘটনাস্থলেই শান্তর মৃ’ত্যু হয়।

এদিকে শান্তর মৃ’ত্যু’র ঘটনায় শোক জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। শনিবার রাতে ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে নিহতের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন তারা।

Check Also

বরগুনায় বাবার অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মা-মেয়েকে মারধর

বরগুনার আমতলীতে সাকিব খান নামে এক মাদকসেবী যুবকের সঙ্গে কথা বলতে রাজি না হওয়ায় মা-মেয়েকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.