স্কুল বন্ধ থাকলেও প্রাথমিকে সুখবর

করোনার সংক্রমণের কারণে স্কুল বন্ধ থাকলেও বাড়িতে বসেই বিস্কিট ও চাল-ডাল পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা। সোমবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে দেশের সব জেলা প্রশাসককে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, দেশব্যাপী কোভিড ১৯-এর সংক্রমণ রোধ এবং বিস্তার প্রতিরোধে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মতো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও বন্ধ রয়েছে। ফলে দারিদ্র্যপীড়িত এলাকায় স্কুল ফিডিং প্রকল্পের ১০৪টি উপজেলায় বিস্কিট বিতরণ স্থগিত রয়েছে।

দ্রুতসময়ে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের ১০৪টি উপজেলায় উচ্চ পুষ্টিমান সমৃদ্ধ বিস্কিট এবং ১৬ উপজেলায় মিড-ডে মিল কর্মসূচির চাল, ডাল ও ভোজ্যতেল প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিতরণের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনায় বলা হয়েছে।

এর আগে গত ১০ জুন দারিদ্র্যপীড়িত এলাকায় স্কুল ফিডিং প্রকল্পের ৩০তম স্টিয়ারিং কমিটির সভায় প্রকল্পভুক্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে উচ্চ পুষ্টিমান সমৃদ্ধ বিস্কিট এবং মিড-ডে মিলের ১৬টি উপজেলার শিক্ষার্থীদের জন্য সংগৃহীত ও মজুদ চাল, ডাল ও ভোজ্যতেল বাড়িতে বাড়িতে অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সে সিদ্ধান্তের আলোকে সামগ্রী বিতরণের এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়, দারিদ্র্যপীড়িত স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ ২০২১ সালের জুনে শেষ হবে। প্রকল্পের প্রাথমিক বিদ্যালয়ভুক্ত শিক্ষার্থীর বাড়ি বাড়ি গিয়ে এককালীন ২০২১ সালের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসের উচ্চ পুষ্টিমান সমৃদ্ধ বিস্কিট মজুদ থাকা সাপেক্ষে ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আগের গাইডলাইন অনুযায়ী বিতরণ করতে হবে।

Check Also

যে কারণে উধাও হলো বগুড়ার সেই পুকুরের মাছ-পানি

দীর্ঘ বছরের পুরোনা পুকুর। হঠাৎ কী এমন হলো যে নিমিষেই পানি ও মাছ শূন্য হয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *