গ’র্ভব’তী হয়েও বি’ষাক্ত সা’পের মুখ থেকে মালিককে বাঁচা’তে পিছুপা হয়নি মা কু’কুর

আমরা বাড়িতে অনেকেই কু’কুর পুষে থাকি। কুকুর যে প্রভুভক্ত। নিজের প্রাণ বলি দিয়ে ফের তার প্রমাণ দিল দুই বছরের পিটবুল নং হর্ম। বিশ্বের সবচেয়ে বি’ষাক্ত সা’পের মুখ থেকে তার মালিককে বাঁচা’তে নির্ভয়ে এগিয়ে যায় সে।জানা যায়, প্রায় চার বার বি’ষাক্ত কো’বরা ছো’বল মারে তার গায়ে। তবু প্রাণ থাকা পর্যন্ত সে ল’ড়াই করে যায় সা’পটির সঙ্গে। তারপরই আস্তে আস্তে নি’স্তেজ হয়ে যায় নং।

এই ঘটনাটি ঘটেছে সেন্ট্রাল থাইল্যান্ডের পাথুম থানি অঞ্চলে।জানা গেছে, নং হর্ম গর্ভবতী ছিল। তার পেটে ১০টি ছানা ছিল। তার মালিক বুনচার্ড পাপ্রোম তার ফেসবুকে বেশকিছু ছবি পোস্ট করেন। সেখানে দেখা যায়, নং হর্মের চোয়ালে অনেকগুলো সা’পের ছো’বলের দাগ। নং হর্ম শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত ল’ড়াই চালিয়ে গিয়েছিল এটাই তার প্রমাণ।

এ ব্যাপারে বুনচার্ড জানান, সা’পের মুখ থেকে আমাকে আর আমার সন্তানকে রক্ষা করেছে নং হর্ম। তার কাছে আমি চির ঋণী থেকে গেলাম। সে নিজের জীবন দিয়ে সা’পটিকে মে’রেই শেষ নিঃশ্বা’স ত্যাগ করে। এদিকে কো’বরা সা’পকে বি’ষধর সা’পের রাজা বলা হয়ে থাকে। এরা যে পরিমাণ বি’ষ থলিতে জমা রাখে তাতে মানুষ তো মারা যায়-ই, পূর্ণ বয়স্ক একটি হাতিরও মৃ’ত্যু হয় মাত্র তিন ঘণ্টার মধ্যে।

Check Also

পরকীয়া কি সামাজিক নাকি মানসিক রোগ?

পরকীয়া একটি সুন্দর সংসার ও সমাজকে ছারখার করে দিচ্ছে। পরকীয়ার কবলে পড়ে ধ্বংস হচ্ছে সংসার, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *